Friday, May 31, 2024
- Advertisment -spot_img

গোপীবল্লভপুরে নিজ উদ্যোগে রাস্তা সংস্কারে হাত লাগালেন গ্রামবাসীরা, কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ TMC-র পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে

স্টাফ রিপোর্টার, ঝাড়গ্ৰাম: আবেদন নিবেদন করেও শ্মশান সংলগ্ন রাস্তা তৈরি হয়নি। গ্রামবাসীরা উদ্যোগ নিয়ে সেই রাস্তা তৈরির কাজ করছিলেন। অভিযোগ সেই রাস্তা তৈরির কাজ বন্ধ করে দিলেন তপসিয়া গ্ৰাম পঞ্চায়েতের তালগ্রামের তৃণমূলের গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য তথা গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের যুব তৃণমূলের সভাপতি অনুপম মল্লিক। গ্রামবাসীদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে তারা রাস্তার জন্য স্থানীয় প্রধান সহ বিভিন্ন মহলে আবেদন নিবেদন করেও শ্মশানে যাওয়ার রাস্তা তৈরি হয়নি। এরপর গোপীবল্লভপুর ২ নং ব্লক তৃনমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তথা প্রাক্তন অঞ্চল তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি নিরঞ্জন দাসের সাহায্য এবং স্থানীয় মানুষজনেরা তহবিল সংগ্রহ করে রাস্তা তৈরির কাজ শুরু করেছিলেন।

এদিন সোমবার গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের তপশিয়া অঞ্চলের বাহারুনা গ্রাম সহ চার পাঁচটি গ্রামের শ্মশানে যাওয়ার রাস্তা তৈরির কাজ করছিলেন। গ্রামবাসীদের অভিযোগ ছিল শ্মাশানের ওই রাস্তাটিতে ঝোপ, জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে যাতায়াত করতে হয়।যার ফলে রাতের অন্ধকারে শ্মাশানে দেহ নিয়ে যাওয়ার সময় বিষাক্ত পোকা, সাপের ভয় থাকে। তা সত্ত্বেও যেতে হয়। এবিষয়ে তালগ্রামের তৃণমূলের গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য তথা গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের যুব তৃণমূলের সভাপতি অনুপম মল্লিক বলেন, আমি কাজে বাধা দিতে যায়নি। যেহেতু ১০০ দিনের কাজ বন্ধ রয়েছে। তাই আমি খোঁজ নিতে গিয়েছিলাম। সেখানে আমাদের প্রাক্তন অঞ্চল সভাপতি নিরঞ্জন দাসকে একটু বেশি জিজ্ঞেস করতেই উনারা কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।এই বিষয়ে এলাকার তপসিয়া গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান সুসমা সিং বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের জন্য ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের কাজ বন্ধ রয়েছে। তাই মানুষ ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে কাজ করতে পারছে না। ওই রাস্তার উপর নির্ভরশীল পাঁচটি গ্রামের মানুষ। গ্রামবাসীরা নিজেরা রাস্তা নির্মাণের কাজে হাত লাগিয়েছেন এটা আমরা শুনে খুবই খুশি। রাস্তাটি যাতে ভালো হয় সেই ভাবেই কাজ করা হোক এটাই চাই। তাহলে বিশেষভাবে উপকৃত হবেন ওই এলাকার গ্রামবাসীরা।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments