Friday, May 31, 2024
- Advertisment -spot_img

করোনায় বেহাল ঝাড়গ্রামের স্বাস্থ্য ব্যাবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদন, ঝাড়গ্রাম: করোনায় বেহাল ঝাড়গ্রামের স্বাস্থ্য ব্যাবস্থা। ঝাড়গ্রাম জেলা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার অাক্রান্ত করোনায়। এখানেই করোনা পরীক্ষার ছয় জন ল্যাব টেকনিশিয়ান এর মধ্যে পাঁচজন করোনায় অাক্রান্ত। ফলে সুপার স্পেশালিটি তে করোনা পরীক্ষা সহ অন্যান্য পরীক্ষা সঙ্কটে। হাসপাতালের গাইনোকলোজিস্ট, অ্যানাথিসিস্ট সহ একাধিক ডাক্তার এবং স্বাস্থ্য কর্মী অাক্রান্ত। পাশাপাশি ঝাড়গ্রামের বেলপাহাড়ি গ্রমীন হাসপাতালে একজন মেডিক্যাল অফিসার সহ বেশ কিছু স্বাস্থ্য কর্মী অাক্রান্ত।

করোনায় বেহাল ঝাড়গ্রামের স্বাস্থ্য ব্যাবস্থা

অন্যদিকে ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ডাক্তার, ল্যাব টেকনিশিয়ান, নার্স সহ অাট জন স্বাস্থ্য কর্মী অাক্রান্ত। একি রকম ঝাড়গ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপারেশন উত্তম ঘোষ সহ একাধিক পুলিশ কর্মী অাক্রান্ত। ঝাড়গ্রাম জেলা শাসক অফিসে একাধিক করোনা অাক্রান্ত হওয়ায় জেলাশাসক অফিসের সাধারণ মানুষেরর ঢোকা নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। অফিসের মূল ফটক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাইরে রাখা বক্সে প্রয়জনীয় কাগজ জমা করতে হচ্ছে। কার্যালয়ের ভিতর একাধিক অফিস স্যানিটাইজ করা হয়েছে। অফিস চত্ত্বর জুড়ে একাধিক বিধিনিষেধ চালু করা হয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে মাক্স ব্যাবহার থেকে শুরু করে কড়া বিধিনিষেধ জারি করা হচ্ছে।


আরও খবর: এবার হোয়াটসআপ গ্রুপ ছাড়লেন হিরন

আরও খবর: রাজ্যে করোনার তৃতীয় ঢেউ, বন্ধ স্কুল কলেজ ?

গঙ্গা সাগর মেলা নিয়ে রাজ্যের অব্স্থান জানতে চাইল আদালত!

কলকাতা: গঙ্গা সাগর মেলা নিয়ে রাজ্যের অব্স্থান জানতে চাইল আদালত, আগামীকাল দুপুর ২ টোর মধ্যে তা কোর্ট কে জানানোরও নির্দেশ দেওয়া হলো এই অতিমারী পরিস্থিতিতে আদৌ কী এই মেলা করার যৌক্তিকতা আছে কি?

এই দাবী নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন চিকিৎসক অভিনন্দন মণ্ডল। বুধবার সেই মামলার শুনানিতে রাজ্যের অবস্থান জানতে চাইল আদালত। এই অতিমারী পরিস্থিতিতে আদৌ কীভাবে এই মেলা আয়োজন করা সম্ভব ? তা স্পষ্ট করে রাজ্য প্রশাসনকে জানাতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে ওই চিকিৎসক গঙ্গাসাগর মেলা বন্ধ করার আবেদন জানিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। তাঁর দাবি ছিল, রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল, এই মেলায় বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৩০ লক্ষের বেশি মানুষের জনসমাগম হয়, ফলে এমন জনসমুদ্রে দূরত্ববিধি-সহ অন্যান্য কোভিড প্রোটোকল মানা সম্ভব নয়।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments