Friday, May 31, 2024
- Advertisment -spot_img

বিরল দৃষ্টান্ত! একই সঙ্গে এক মা জন্ম দিলেন তিন শিশুর

নিজস্ব প্রতিবেদন: এক বিরল দৃষ্টান্ত! একই সঙ্গে এক মা জন্ম দিলেন তিন শিশুর। তিনটি কন্যা সন্তান। মা ও তিন কন্যা সন্তান এখন সুস্থ আছেন। বৃহস্পতিবার রাতে হাওড়ার উলুবেড়িয়ায় এই ঘটনাটি ঘটে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে শ্যামপুর ১ নম্বর ব্লকের রাধাপুর এর বাসিন্দা তোহিদা বিবি প্রসব বেদনা নিয়ে বৃহস্পতিবার ভর্তি হন কমলপুর হাসপাতালে। সেখানে প্রথমে দুটি কন্যা সন্তান প্রসব হয় নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে। এরপর তৃতীয় সন্তান হওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছিলেন। দেরি হচ্ছিল। সেখানে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞগণ চিকিৎসক না থাকায় তাকে পাঠানো হয় উলুবেড়িয়া মহাকুমা হাসপাতালে। সেখানে তৃতীয় সন্তান প্রসব হয় নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমেই। তিনজনে কন্যা সন্তান। তবে তিনজনেরই ওজন কম রয়েছে।

বিরল দৃষ্টান্ত! একই সঙ্গে এক মা জন্ম দিলেন তিন শিশুর

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন ৩২ সপ্তাহে ওই মহিলার প্রসব হয়েছে। প্রথম দুটি কন্যা সন্তানের ওজন এক কেজি ৩০০ গ্রাম করে। তবে তৃতীয় সন্তানটি ওজন এক কেজি ৩২৫ গ্রাম। সকলেই অপরিণত। উলুবেড়িয়া মহাকুমা হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক অর্ঘ্য মান্ডি বলেন মহিলার সমস্যা হতে পারতো। তবে রক্তক্ষরণের সম্ভাবনা প্রবল ছিল। কিন্তু আমরা ব্যবস্থা নিয়ে সেটা আটকে দিই। ফলে মহিলা সুস্থ রয়েছেন। তার বিশেষ কোনো এই মুহূর্তে সমস্যা নেই। যদি ব্লিডিং হতো তাহলে সমস্যা হত। উলুবেড়িয়া মহাকুমা হাসপাতালের সুপার সুদীপরঞ্জন কাঁড়ার বলেন আমাদের চিকিৎসকরা দক্ষতার সঙ্গে ওই মহিলার প্রসব করিয়েছেন এবং তিনি সুস্থ আছেন। তবে শিশুগুলির সমস্যা রয়েছে। তাদের যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালের সিক নিউবর্ন কেয়ার ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক পুষ্কর মিত্র বলেন শিশুগুলোর ওজোন অনেকটাই কম। তার ওপর তাদের ফুসফুসের সমস্যা রয়েছে। স্বাস কষ্ট ছিল। সুগার ফল করার যাতে পারে। এই অবস্থায় যাতে তাদের সুস্থ রাখা যায়। এই অবস্থায় যাতে তাদের সুস্থ রাখা যায় সেজন্য তাদের অক্সিজেন সহ প্রয়োজনীয় মেশিনের মাধ্যমে সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়েছে। যাতে কোনো সমস্যা না হয়। আমরা কমপক্ষে তিন দিন তাদেরকে পর্যবেক্ষণে রাখবো। তিনি আরো বলেন আমাদের এখান থেকে একটি সাতশো কুড়ি গ্রাম ওজনের শিশু সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। তাই আশা করছি এরাও সুস্থ হয়ে যাবে। তাই এদেরকেও সুস্থ করে বাড়ি ফেরানো আমাদের চ্যালেঞ্জ বলেও জানান পুষ্করবাবু। মহিলার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে মহিলার আরো একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। এটি তার দ্বিতীয় বারের প্রসব।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments