Thursday, May 30, 2024
- Advertisment -spot_img

বাস দূর্ঘটনায় মৃত কলকাতা পুলিশে কর্মরত ঝাড়গ্রামের বাসিন্দা বিবেকানন্দ ডাব

জঙ্গলমহল বার্তা ডেস্ক: বৃহস্পতিবার সকালে বাস দূর্ঘটনায় (Bus Accident) মারা যান কলকাতা (Kolkata) পুলিশের রিজার্ভ ফোর্সের কর্মী বিবেকানন্দ ডাব। তিনি কলকাতা পুলিশের ( Kolkata Police) কম্পিউটার বিভাগে নিযুক্ত ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে মেটিয়াব্রুজের দিক থেকে হাওড়ার দিকে যাচ্ছিল মিনি বাসটি।ফোর্ট উইলিয়ামের (fort Willi) সামনে যেখানে রেড রোড বন্ধ, সেখানে আইল্যান্ড দিয়ে পার্ক স্ট্রিটের (Park Street) দিকে ঘুরতে গিয়ে হটাৎ ব্রেক ফেল করে বাসটি। বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারে গিয়ে ধাক্কা মারে।

সাথে বাইক আরোহীকেও ধাক্কা মারে এবং বাইক আরোহী বাসের তলায় ঢুকে যায়। এরপর ঘটনাস্থলে আসে পুলিসকর্মী। বাইকে কে.পি লেখা দেখতে পেয়ে খোঁজ খবর শুরু হয় তাঁরা। জানা যায়, নিহত বাইক আরোহী কলকাতা পুলিসের রিজার্ভ ফোর্সের কর্মী। শেষ পর্যন্ত ক্রেন দিয়ে বাসটিকে সরিয়ে, তড়িঘড়ি ওই বাইক আরোহীকে এস.এস.কেম.হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।আর সেখানেই বাইক আরোহী পুলিশ কর্মীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এছাড়াও দূর্ঘটনায় আহত হয়েছে ১২জন যাত্রী।

আহত যাত্রীদেরও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে চিকিৎসার জন্য। বিবেকানন্দ ডাবের বাড়ি, ঝাড়গ্ৰাম (Jhargram) জেলার জাম্বনী (Jamboni) থানার অন্তর্গত চিচিড়া (Chira) গ্ৰামে। বৃদ্ধ মা-বাবার একমাত্র পুত্র সন্তান ছিলেন বিবেকানন্দ ওরফে বিবেক ডাব। এছাড়াও একটি মাত্র বোন। বোনের বিয়ে হয়েছে চিচিড়া গ্ৰামেই। গ্ৰামের সকলে তাঁকে বিবেক বলেই ডাকেন।খুবুই প্রান্তবন্ত, নরম মনের মানুষ ছিলেন। সাত-আটবছর আগে বিয়ে করেন বিবেকানন্দ। বাবা-মা, স্ত্রী ও পাঁচ বছরের পুত্র সন্তান নিয়ে তাঁর ছোট্ট সংসার। এছাড়াও বাড়ির কাছেই থাকেন, নিজের জেঠু-জেঠিমা,কাকু-কাকিমা ও তাঁদের সন্তানরা। স্ত্রী পেশায় শিক্ষকতা করেন।

লকডাউনের জন্য স্কুল শিক্ষক স্ত্রী বেশ কিছুদিন কলকাতাতেই ছিলেন। সম্প্রতি ফিরেছেন জাম্বনীর চিচিড়া গ্ৰামের শ্বশুর বাড়িতে। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ নিহত কলকাতা পুলিসের কর্মী বিবেকানন্দ ডাবের পুরো পরিবার। বিবেকানন্দের জেঠুর ছোটো ছেলে প্রবিত্র ডাব জানান, বেলা ১২টা নাগাদ আমরা নিউজে দেখি খবরটা।

বাস দূর্ঘটনায় মৃত কলকাতা পুলিশে কর্মরত ঝাড়গ্রামের বাসিন্দা বিবেকানন্দ ডাব

এরপর আমরা বাড়ির সবাই ফোন করি বিবেকের নম্বরে কিন্তু ফোন সুইচ অফ বলায়। বিবেকের একমাত্র ছেলে আদির নামটা দেখে বাইকটাকে শনাক্ত করতে পারি আমরা। বেলা বারোটা নাগাদ বিবেকানন্দের মৃত্যুর খবর আসার পর থেকে কথা বলার মতো অবস্থায় নেই কেউ। আত্মীয়রা জানালেন, সবার বিপদে এগিয়ে আসতো আমাদের বিবেক। গ্রামের এক প্রাণবন্ত ছেলেকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ জাম্বনীর গোটা চিচিড়া (Jhargram District)

আরও খবর: প্রেমিকার সঙ্গে প্রেমে মত্ত কিরণ দত্ত !! তবে কি পুরোনো প্রেমিকাকে কোনোদিনও ভুলতেই পারেনি THE BONG GUY ?

আরও খবর দেখুন: ঝাড়গ্রাম সফরে সাংবাদিক বৈঠকে মুকুল রায় প্রসঙ্গে বিষ্ফোরক মন্তব্য শুভেন্দু অধিকারীর

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments