Friday, May 31, 2024
- Advertisment -spot_img

ঝাড়গ্রামে একটি মা হাতি জন্ম দিল এক হস্তি শাবকের

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রামের (Jhargram) বাঁকা ভুরকুন্ডা এলাকায় একটি মা হাতি জন্ম দিল এক হস্তি শাবকের। ঝাড়গ্রাম জেলার (Jhargram District) বনদপ্তর এর বালি ভাষা বিট এর অন্তর্গত মানিকপাড়া (Manikpara) রেঞ্জের বাঁকা ভুরকুন্ডার জঙ্গলে শনিবার গভীর রাতে একটি মা হাতি (Elephant) এক হস্তি শাবক এর জন্ম দেয়। সেই সদ্যোজাত হস্তি শাবক কে নিয়ে ওই জঙ্গলে থাকা হাতির পাল আনন্দে মেতে ওঠে। চলতে থাকে নতুন সদ্যোজাত কে নিয়ে আনন্দের উৎসব।

আরও খবর: আরও ভয়ঙ্কর তৃতীয় ঢেউ, আছড়ে পড়বে ভারতে

তবে হাতির দলের এই আনন্দ উৎসব গ্রামের বাসিন্দাদের কাছে হয়ে দাঁড়াল আতঙ্কের বেড়াজাল। সারারাত ধরে সদ্যোজাত হস্তিশাবকটিকে ঘিরে রাখে হাতির দল। যার ফলে ওই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। সাধারণত সদ্যোজাত  হস্তি শাবক কে ছেড়ে কোথাও যাবেনা হাতির দল, ওই এলাকায় কয়েক দিন থাকবে বলে বন দপ্তর সূত্রে জানা যাচ্ছে। যার ফলে ওই এলাকার বাসিন্দারা হাতির হামলার আশঙ্কায় আতংকের মধ্যেই রয়েছেন।

বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকার সর্বস্তরের মানুষকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে সদ্যোজাত হস্তি শাবকটিকে এবং হাতির দলকে নজরে রাখা হয়েছে বলে বন দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছে। ওই এলাকায় কয়েক দিন ধরে বেশ কয়েকটি দাঁতাল হাতি একসঙ্গে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে, ঘরবাড়ির ক্ষতির পাশাপাশি প্রচুর ফসলের ক্ষতি করছে হাতির দল। যার ফলে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।

আরও খবর: Nusrat Jahan: ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম দিলেন নুসরত জাহান, মা হলেন অভিনেত্রী

ঝাড়গ্রামে একটি মা হাতি জন্ম দিল এক হস্তি শাবকের

এবং যার জেরেই হাতির পালের নতুন সদস্যের আগমন ভয়ের প্রহরীতে এসে থেমেছে। বিষয়টি বন দফতরকে জানানো হয়েছে ইতিমধ্যেই। বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকার বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার পাশাপাশি যাদের ফসলের ও ঘরবাড়ির হাতির দল ক্ষতি করেছে তাদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে হাতিকে উত্যক্ত করতে নিষেধ করা হয়েছে এবং জঙ্গল এলাকার রাস্তা দিয়ে রাতে যাতায়াত করতে নিষেধ করা হয়েছে। এলাকাটিতে এর আগেও হাতির দাপটে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জঙ্গলের একেবারেই নিকটবর্তী হওয়ায় কখনও খাবারের সন্ধানে কখনও বা টহল দিতে বেরিয়ে পরে হাতির দল। এবং সারাদিন জমির ফসলের ক্ষতি থেকে শুরু করে গ্রামবাসীদের ঘরের ক্ষয়ক্ষতি করে থাকে তারা। যা একপ্রকার আতঙ্কের সৃষ্টি করে দিয়েছে গ্রামের মানুষজনদের বুকে।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments