Sunday, April 14, 2024
- Advertisment -spot_img

গোপীবল্লভপুরে ৯ মাস পর গ্রামে ফিরে এসে গলায় দড়ি দিয়ে প্রেমিক-প্রেমিকার আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর এক ব্লকের অন্তর্গত গোপীবল্লভপুর থানার বংশীধর পুর গ্রামে বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটে। মৃত প্রেমিক প্রেমিকার নাম ধীরেন ডাঙ্গুয়া ও অঞ্জলি সিং। দুজনেরই বাড়ি গোপীবল্লভপুর থানার বংশীধর পুর গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে প্রায় ৯ মাস আগে ধীরেন ডাঙ্গুয়া তার স্ত্রী ও তিন ছেলে মেয়েকে ছেড়ে গ্রামেরই এক গৃহবধূ অঞ্জলি সিং কে নিয়ে গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়। অঞ্জলি সিংয়ের স্বামী অনন্ত সিং সহ দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। সেই সময় তাদের খোঁজ করে কোথাও পাওয়া যায়নি। গোপীবল্লভপুরে ৯ মাস

আরও খবর: ঝাড়গ্রামে দুই নাবালিকাকে অপহরণের অভিযোগ দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে

তাই নয় মাস পর বুধবার সকালে বংশীধর পুর গ্রামের মাঝে থাকা বড়খাল এলাকায় একটি নিমগাছে ওই দুজনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা। যার ফলে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। মৃত ধীরেন ডাঙ্গুয়ার স্ত্রী যমুনা ডাঙ্গুয়া বলেন ৯ মাস আগে ঘর ছেড়ে চলে গিয়েছিল আমার স্বামী, আমি ছেলে মেয়েকে নিয়ে দিনমজুর খেটে সংসার চালাচ্ছি। একদিন ও বাড়ি ফিরে আসেনি। লোকমুখে শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি আমার স্বামী গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছে। একই কথা বলেন অঞ্জলি সিংয়ের স্বামী অনন্ত সিং, তিনি বলেন ৯ মাস আগে ধীরেন ডাঙ্গুয়ার সাথে ও বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

আরও খবর: ঝাড়গ্রামে দুই নাবালিকাকে অপহরণের অভিযোগ দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে

গোপীবল্লভপুরে ৯ মাস পর গ্রামে ফিরে এসে গলায় দড়ি দিয়ে প্রেমিক-প্রেমিকার আত্মহত্যা

দুই মেয়ে এক ছেলেকে নিয়ে আমি কোনো ক্রমে সংসার চালাচ্ছি। বহু চেষ্টা করেও ওদের খোঁজ পায়নি। বুধবার সকালে লোক মুখে শুনে গিয়ে দেখি দুইজনেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে নিম গাছে ঝুলছে। খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে যায় গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ। ঘটনা স্থলে গিয়ে প্রেমিক প্রেমিকার ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। সেই সঙ্গে ঠিক কি কারণে ওই ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখার জন্য গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

The incident took place at Banshidharpur village of Gopiballavpur police station under Gopiballavpur block of Jhargram district on Wednesday morning. The names of the deceased lovers are Dhiren Dangua and Anjali Singh. Both of them live in Banshidharpur village of Gopiballavpur police station. According to local sources, about nine months ago, Dhiren Dangua left his wife and three sons and daughters and fled the village with Anjali Singh, a housewife from the village. Anjali Singh has two daughters and a son, including her husband Ananta Singh.

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments