Saturday, April 20, 2024
- Advertisment -spot_img

গোপীবল্লভপুরে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার, এলাকায় চাঞ্চল্য

স্টাফ রিপোর্টার, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার (Jhargram District) গোপীবল্লভপুর (Gopiballavpur) ১নং ব্লকের ভুলনপুর (Bhulanpur) গ্রামে মঙ্গলবার উদ্ধার হল এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মৃত ব্যক্তির নাম প্রবীর মঙ্গল (Prabir Mandol), তার বয়স ৪৭বছর। তার বাড়ি ভুলনপুর গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় মঙ্গলবার সকালে কাজ করতে যাবেন বলে বাড়ি থেকে বের হন। তার কয়েক ঘন্টা পর তার বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি ঝোপ এর মধ্যে একটি গাছে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান এলাকাবাসীরা। যার ফলে এলাকায় চাঞ্চল্য (Penic) ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেন গোপীবল্লভপুর থানায় (Gopiballavpur Ps)।

গোপীবল্লভপুরে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার, এলাকায় চাঞ্চল্য 

খবর পেয়ে গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ টি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝাড়গ্রাম (Jhargram) সুপার স্পেশালিট হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এটা খুন না আত্মহত্যা তা খতিয়ে দেখার জন্য ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ।তবে মৃতের পরিবারের অভিযোগ তাকে খুন করে গলায় দড়ি দিয়ে জঙ্গলের মধ্যে গাছে কে বা কারা ঝুলিয়ে দিয়েছে। তবে ওই ঘটনাকে কেন্দ্র কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ মঙ্গলবার মৃতদেহ টির ময়নাতদন্তের পর তার পরিবারের হাতে মৃতদেহটি তুলে দেয়। তবে তার পরিবারের সকলেই ওই ঘটনার পর ভেঙ্গে পড়েন।

অন্য খবর: ঝাড়গ্রামের জামবনিতে বজ্রপাতে এক মহিলার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া

 ছবি: ইন্টারনেট                    

স্টাফ রিপোর্টার, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার জামবনি ব্লক এর রানিপাল গ্রামে বজ্রপাতের ঘটনাটি ঘটে । স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে রানিপাল গ্রামের বাসিন্দা সালগে বাস্কে, তার বয়স ৫৮ বছর। সে যখন মাঠ থেকে গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছিল সেই সময় আচমকা তার উপরেই বাজ পড়ে। বজ্রপাতে তার গোটা শরীর আগুনে ঝলসে যায় এবং তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চিল্কিগড় গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে। সেখানে ডাক্তারবাবুরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। জামবনি থানার পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত জন্য পাঠায়।

বজ্রপাতে মৃত্যুর ঘটনায় সালগে বাস্কের পরিবারে শোকের ছায়া নেমে আসে। সেই সঙ্গে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। ঝাড়গ্রামের বিনপুর এর বিধায়ক দেবনাথ হাঁসদা বলেন ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। বজ্রপাতে মৃতের পরিবারকে তিনি সমবেদনা জানান এবং তার পরিবার যাতে সরকারি সুযোগ-সুবিধা পায় তার সুব্যবস্থা করার তিনি আশ্বাস দেন।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments