Sunday, April 14, 2024
- Advertisment -spot_img

এক নজরে বাংলা

                   এক নজরে বাংলা                           

 

“ঝাড়গ্রাম”

মানুষের পাশে দাঁড়ালো অপরাজেয়

করোনার কারণে রাজ্যে চলাকালীন লকডাউনের সময়ে নিজেদের সাধ্যমত মানুষকে সচেতন করতে এবং মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অপরাজেয়। প্রায় একসপ্তাহ ধরে কয়েকদিন ধরে সংগঠনের উদ্যোগে বিভিন্ন এলাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে সচেতনতা ও সমাজসেবা মূলক কর্মসূচি।এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে বুধবার ঝাড়গ্রাম জেলার ৮ নং চুবকা অঞ্চলের খালশিউলির কলাবনি গ্রামে প্রায় ২০০ টি পরিবারের হাতে এবং খালশিউলি বাজারে প্রায় ১০০জন মানুষের হাতে সংগঠনের উদ্যোগে করোনা সচেতনতায় মাস্ক, সাবান, স্যানিটাইজার এবং করোনা সচেতনতামূলক হ্যাণ্ডবিল তুলে দেওয়া হয়। সংস্থার সদস্য নিরুপম মণ্ডল, বিশ্বজিৎ রানা, পলাশ সেনাপতি, বিজয় জানা, শুভদীপ দাস এর উদ্যোগে এবং স্থানীয় অধিবাসী পঙ্কজ বেরা, বরুণ ঘোড়াই, বিশ্বনাথ সিং এর সহযোগিতায় কাজটি সম্পন্ন হয়। এছাড়াও এই কাজে সহযোগিতা করেন সংস্থার সদস্য চিত্ততোষ পৈড়া , সমর বড়দোলাই, অতনু ঘোষ, শান্তি দাস, অভিজিৎ মুদি প্রমুখ।এর আগে কয়েকদিনে আগে পরপর দুদিনে সংস্থার পক্ষ থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার অন্তর্গত কেশপুর ব্লকের কলাগ্রাম ১১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের মাজুরহাটি গ্রামে এবং ঘনোগেরিয়া গ্রামে সংগঠণের অন্যতম সদস্য সেক সাব্বির হোসেনের নেতৃত্বে এবং সংস্থার সকলের সহযোগিতায় ওই দুই এলাকায় প্রায় পাঁচশত দুঃস্থ পরিবারের হাতে মাস্ক, স্যানিটাইজার, সাবান, বই, খাতা, পেন্সিল, কলম, ইরেজার, তুলে দেওয়া হয়। এর আগে মেদিনীপুর সদর ব্লকের পাঁচখুরি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের সাতগেড়্যা ও সাঁকোটি গ্রামেও একই ধরনের কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। সমস্ত কর্মসূচি গুলি সুষ্ঠু ভাবে রূপায়ণে সহযোগিতা করা সমস্ত সদস্য-সদস্যা, শুভানুধ্যায়ী এবং বিভিন্ন এলাকার সহযোগী গ্রামবাসীদের সংগঠনের পরিচালকদের পক্ষে চিত্ততোষ পইড়া ও কাঞ্চন ঘড়া অভিনন্দন জানিয়েছেন।

 

 

“উত্তর দিনাজপুর”

দলীয় নির্দেশে পঞ্চায়েত প্রধান ও উপপ্রধান ইস্তফা দিতে এলেও, এলেন না সভাপতি, অনাস্থার পথে দল

জঙ্গলমহল বার্তা, উত্তর দিনাজপুর:- দলীয় প্যানেলের বিরুদ্ধে প্রধান উপপ্রধান হওয়ার কারণে ওই প্রধান ও উপপ্রধান কে ইস্তফা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় দলের পক্ষ থেকে। সেই নির্দেশ মান্যতা দিয়ে বৃহস্পতিবার চোপড়ার বিডিও র নিকট ইস্তফা পত্র জমা দিতে যান চোপড়া ব্লকের ৮ নং মাঝিয়ালী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শহরবানু ও উপপ্রধান বিশ্বজিৎ সিংহ। কিন্তু জেলা শাসকের অনুমতি না মেলায় বিডিও তাদের ইস্তফা পত্র গ্রহন করেননি বলে জানান প্রধান ও উপপ্রধান। উল্লেখ্য ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতি এবং ৮ টি গ্রাম পঞ্চায়েতই সংখ্যাগরিষ্ঠতায় আসে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এরপর আটটি পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন শুরু হয়। বোর্ড গঠনে ব্লক কমিটির সিদ্ধান্ত মতে প্যানেল তৈরি করা হয় ওই প্যানেলে ঠিক করা হয় কোন পঞ্চায়েতের প্রধান আর কে উপপ্রধান হবে। ঠিক সেই মত মাঝিয়ালী গ্রাম পঞ্চায়েতেরও প্যানেল পাঠানো হয়। কিন্তু দলীয় প্যানেল তোয়াক্কা না করে ভোটাভুটিতে এই পঞ্চায়েতে প্রধান ও উপ প্রধান নির্বাচিত হয়। তাই তারা দলের রোষে পড়েন ওই পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান। এরপর দলীয় নীতি-আদর্শ বজায় রাখতেই গত সপ্তাহে ওই প্রধান ও উপ প্রধানকে ইস্তফা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় দলের পক্ষ থেকে। সেইমতো দলের নির্দেশকে মান্যতা দিয়ে বৃহস্পতিবার ওই প্রধান ও উপপ্রধান লিখিতভাবে ইস্তফা পত্র জমা দিতে যান চোপড়ার বিডিও র নিকট। কিন্তু বিডিও অফিসে গেলে বিডিও সাহেব জানিয়ে দেন যে জেলা শাসকের নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত তিনি তাদের ইস্তফা পত্র জমা নিতে পারবেন না। তাই ইস্তফা পত্র নিয়ে ফিরে আসেন মাঝিয়ালীর প্রধান শহরবানু ও উপ প্রধান বিশ্বজিৎ সিংহ। এদিন তাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের চোপড়া ব্লক সভাপতি প্রীতি রঞ্জন ঘোষ,ব্লক কোর কমিটির চেয়ারম্যান তাহের আহমেদ এবং মাঝিয়ালী অঞ্চল কোর কমিটির চেয়ারম্যান একরামুল হক।

এব্যাপারে তৃণমূল কংগ্রেসের চোপড়া ব্লক কোর কমিটির চেয়ারম্যান তাহের আহমেদ বলেন, দলীয় নির্দেশে বৃহস্পতিবার চোপড়ার বিডিও অফিসে ইস্তফা দিতে আসেন মাঝিয়ালী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শহরবানু ও উপপ্রধান বিশ্বজিৎ সিংহ। কিন্তু দলীয় নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহার উদ্দিন এর অনুরূপ ভাবে ইস্তফা দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি এদিন আসেননি। তিনি আরও জানান, এছাড়াও সভাপতির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা যায়নি। তাই দল সিদ্ধান্ত নেবে যদি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ইস্তফা না দেন বা যোগাযোগ না করেন তাহলে দল তার বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে বাধ্য থাকবেন বলে তাহের বাবু জানান। এখন চোপড়া বাসি তাকিয়ে আছে চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে ইস্তফা দেবেন? নাকি দল তার বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে বাধ্য হবে ? এব্যাপারে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মাদ আজহার উদ্দিন এর প্রতিক্রিয়া জানতে তাকে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোন সুইচ অফ থাকায় তার মতামত নেওয়া সম্ভব হয়নি।

“ঝাড়গ্রাম”

মাসরুম চাষের জালিয়াতির পর্দাফাঁস

স্টাফ রিপোর্টার, ঝাড়গ্রাম: মাসরুম চাষের প্রশিক্ষণ দিয়ে লক্ষ্যাধিক টাকা অায়ের প্রলভন। প্রলভন দেখিয়ে টাকা অাদায়। চাষের বদলে নেট ব্যবসা পেতে বেকার যুবক যুবতী দের প্রতারনা। অাটক এক যুবক। নাম কৃষ্ণা সিং।অভিযোগ, ঝাড়গ্রাম থানার বাঘমুড়ি গ্রামের বাসীন্দা কৃষ্ণা সিং বাঘ মুড় গ্রামে মাসরুম প্রজেক্ট তৈরী করে। যদিও গ্রামে এরকম কোনো প্রজেক্টের অস্তিত্ব নেই। প্রজেক্টে কাজ দেওয়ার নামে বেকার যুবকদের নিয়োগ করা হয়। প্রত্যেকের কাছে ট্রেনিং বাবদ ৭৫০০টাকা করে নেওয়া হয়। ভর্তীর পর জানানো হয় প্রত্যেক কে ১০জন সদস্য জোগার করতে হবে। সদস্য জোগাড় করলে শুরু হবে তাের বেতন। ১০জন জোগার হলে মাসে ১৫হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হবে। পাশা পাশি কোম্পানি তে তারা জায়গাও পাবে। সুযোগ পাবে বিদেশ ভ্রমনের। মাসরুম চাষের বদলে শুরু হয় চেনব্যাবসার মাধ্যমে টাকা অাদায়। লকডাউন উপেক্ষা করে একটা ট্রেড লাইসেন্স বার করে একটি দোকান ঘরে,শহরের মধ্যেচলতে থাকে মাশরুম চাষের প্রশিক্ষণের নামে চেন ব্যাবসা। অাজ সব জানতে পেরে পুলিশ হগোটা বিষয় তদন্তে নামে এর পেছনে অার কে কে অাছে। এখনো পর্যন্ত কত জন বেকার যুবক যুবতী র কাছ থেকে কত টাকা অাদায় করেছে সমস্ত বিষয় তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। অাপাতত শিল করা হয়েছে দোকান ঘরটি।

“ঝাড়গ্রাম”

ফের হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির

ঝাড়গ্রাম: ফের হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। এদিন ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম জেলার জামবনি থানার ঝাড়খন্ড সীমান্ত লাগোয়া বনডিহি গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গ্রামের বাসিন্দা রুটু বাগাল, বয়স(৫৩) এদিন প্রাতঃকৃত্য করতে গিয়েছিলেন। গ্রামের জঙ্গলে ৯টি দলমার দাঁতাল রয়েছে। তার মধ্যে ১টি দাঁতাল গ্রাম লাগোয়া বাঁশ বাগানে অবস্থান করছিল। ফেরার সময় সেই দাঁতাল এর আক্রমণে প্রাণ হারান রুটু বাগাল নামে এক যুবক। শুঁড়ে জড়িয়ে আছড়ে মেরে ফেলে। ঘটনা জানাজানি হতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

 

 

 

 

বাংলা সব গুরুত্বপূর্ণ খবর এখন থেকে আমাদের ওয়েবসাইটে চোখ রাখুন প্রতিদিন রাত্রে এক নজরে বাংলা। আজি ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট (WWW.JANGALMAHALBARTA.IN) আর পেতে থাকুন বাংলার সমস্ত খবর আপনার ফোনের মুঠোয়

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments