Sunday, April 14, 2024
- Advertisment -spot_img

এক নজরে বাংলা

 এক নজরে বাংলা           

বানভাসি ও দুর্গতের পাশে দাঁড়িয়ে আবারও প্রমাণ,”মানবিকতা হেরে যায়নি”

নিজস্ব চিত্র

ইয়াসের প্রায় তিন সপ্তাহ কাটলেও এখনও বিধ্বস্ত এলাকা মনে করিয়ে দিচ্ছে সেই তান্ডবের কথা। এর আগে আমপান এবং আয়লাতেও এত ক্ষতি হয়নি বলে জানিয়েছেন সেখানকার এলাকাবাসীরা।  ক্ষতবিক্ষত গ্রামের চেহারা আজও চোখের জলের মাধ্যমে প্রকাশ করে দেয় তারা কতটা অসহায়। সেক্ষেত্রে হুগলী জেলার আরামবাগের সৈয়দ মনিরুল হুদা আবারও দেখিয়ে দিলেন মানবিকতা এখনও হারিয়ে যায়নি।
পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় যেসকল জেলা আজও প্লাবিত, সেই সকল বানভাসি ও দুর্গত এলাকার মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন সোস‍্যাল ওয়েল ফেয়ার সোসাইটির সৈয়দ মনিরুল হুদা। বুধবার তিনি রামনগর -১ ব্লকের শংকরপুর ও তাজপুর দুই বিধ্বস্ত এলাকাতেই পাঁচ শতাধিক অসহায় ও দুর্গত মানুষদের নতুন বস্ত্র ও আর্থিক সাহায্য তুলে দেন। সংস্থার কর্ণধার তথা সভাপতি সৈয়দ জিয়াজুর রহমান তাদের সংস্থাটির পক্ষ্য থেকে বলেন, “এই বিধ্বস্ত এলাকার মানুষদের সাহায্য ও সহযোগিতা করার জন্য সকলকে এগিয়ে আসা উচিত। একের পর এক বিপর্যয়ের কবলে পড়তে হচ্ছে তাদের। প্রতিবারই তাদের বিরাট সঙ্কটের সম্মুখীন হতে হচ্ছে।” এরপরই তিনি সকলকেই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তাঁর পাশাপাশি তাজপুর এলাকায় রাস্তার ওপর ঝুপড়ি করে আশ্রয় নেওয়া মানুষদের হাতে ত্রিপল ও নগদ এক হাজার টাকা করে তুলে দেন সোসাইটির সম্পাদক জিয়াজুর রহমান।এই খারাপ সময়ে দাঁড়িয়ে আবারও জিতল মানবিকতা, জিয়াজুর ও মনিরুল হুদার মতো মানুষজনরা আবারও গড়লেন নয়া নজির।

_____

মেদিনীপুর সদর ব্লকের হাতিহলকার স্কুলে রক্তদান শিবির

করোনা পরিস্থিতির মাঝেই রক্তের গ্রীষ্মকালীন সংকট কিছুটা হলেও মেটাতে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মেদিনীপুর সদর ব্লকের হাতিহলকায় অবস্থিত দি গার্ডেন ইন্টারন্যাশানাল স্কুলে অনুষ্ঠিত হলো একটি রক্তদান শিবির। বুধবার নিউ চুয়াডাঙ্গা স্পোর্টিং ক্লাবের পরিচালনায় এবং পাঁচখুরী ৬/২ অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সহযোগিতায় আয়োজিত এই রক্তদান শিবিরে ১৩ জন মহিলা সহ মোট ৫১ জন রক্তদাতা রক্তদান করেন। পাশাপাশি এদিন চুয়াডাঙ্গা হাইস্কুল সংলগ্ন মাঠের ধারে কিছু চারাগাছ রোপণ করা হয়। কর্মসূচিতে সবাইকে স্বাগত জানান স্পোটিং ক্লাবের সম্পাদক রাজ হোসেন খান। উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক দীনেন রায়, মেদিনীপুর সদর ব্লকের বি ডি ও সুদেষ্ণা মৈত্র, কোতয়ালী থানার আই সি পার্থ প্রতিম পাল, মেদিনীপুর সদর পঞ্চায়েত সমিতির বন ও ভূমি কর্মাধক্ষ্য গণি ইসমাইল মল্লিক, ভারপ্রাপ্ত পঞ্চায়েত প্রধান সেক আব্দুল সাদেক, সমাজসেবী মুকুল সামস্ত, সেলিম মল্লিক,ব্লাড ডোনার্স ফোরামের জেলা সভাপতি অসীম ধর, ক্লাবের সম্পাদক রাজ হোসেন খান, সমাজকর্মী ফাকরুদ্দিন মল্লিকসহ অন্যান্যরা। উপস্থিত ছিলেন নিউ চুয়াডাঙ্গা স্পোর্টিং ক্লাবের কর্মকতা ও সদস্যগণ এবং এলাকার অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা। উল্লেখ্য গত মে মাসে এই শিবিরের উদ্যোক্তাদের যৌথ উদ্যোগে একটি রক্তদান শিবির হয়েছিল।রক্তদান শিবির ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে আয়োজকদের পক্ষে ক্লাবের সম্পাদক রাজ হোসেন খান ধন্যবাদ জানান।

___

কেশপুরের অসহায় মানুষদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন মন্ত্রী শিউলি সাহা

মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পঞ্চায়েত দফতরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা কেশপুর বিধানসভার বিস্তৃর্ণ এলাকা ও বিভিন্ন অঞ্চলের গ্রামে গ্রামে ঘুরে করোনা আক্রান্ত পরিবার ও কাজ হারানো দুঃস্থ পরিবারের সদস্যদের কাছে পৌঁছালেন। প্রথমত সবারই তিনি শারীরিক খোঁজ খবর নেন এবং প্রায় ৭৫০টি পরিবারের হাতে সাধ‍্যমতো খাবার সামগ্রী তুলে দেন। যে কোনো পরিস্থিতিতে প্রত্যেক পরিবারের পাশে থাকার তিনি বার্তা দেন। পঞ্চায়েত দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা বলেন বর্তমান পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো প্রতিটি মানুষের কর্তব্য ।আমি এই এলাকার বিধায়ক হিসেবে কেশপুরের প্রতিটি অসহায় পরিবারের পাশে আমি আমার সাধ্যমত পৌঁছানোর চেষ্টা করছি। তিনি দলীয় কর্মীদের রাজনীতির রং না দেখে মানুষের পাশে গিয়ে তাদের সাহায্য করার আহ্বান জানান। সেই সঙ্গে তিনি বলেন কেশপুরে একশ্রেণীর মানুষ গুজব রটিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। তিনি বলেন গুজবে কান দেবেন না গুজব ছড়াবেন না সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন ।রাজ্য সরকার আপনাদের পাশে রয়েছে। মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন কেশপুর ব্লকতৃনমূলের সভাপতি উত্তমানন্দ ত্রিপাঠি , সহ-সভাপতি দুর্লভ ঘোষ সহ অন্যান্য তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক নেতৃত্ব গন।

RELATED ARTICLES

कोई जवाब दें

कृपया अपनी टिप्पणी दर्ज करें!
कृपया अपना नाम यहाँ दर्ज करें

spot_img

Most Popular

Recent Comments